লখনৌকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রাজস্থান

আইপিএলের এবারের আসরে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। এখনও পর্যন্ত নয় ম্যাচ খেলে আটটিতেই জয় পেয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। এতে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে রাজস্থান। নিজেদের নবম ম্যাচে লখনৌকে সাত উইকেটে হারিয়েছে বাটলার-স্যামসনরা।

শনিবার (২৭ এপ্রিল) আগে ব্যাট করতে নেমে রাজস্থানকে ১৯৭ রানের লক্ষ্য দেয় লখনৌ। জবাব দিতে নেমে সাত উইকেট এবং ছয় বল হাতে থাকতেই জয় তুলে নিয়েছে রাজস্থান।

চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে রাজস্থানের দুই ওপেনার যশস্বী জয়সওয়াল এবং জস বাটলার। দুজনের ব্যাট থেকে ৬০ রান। তবে ১৮ বলে ৩৪ রান করে যস ঠাকুরের বলে বোল্ট আউট হন বাটলার। ১৮ বলে ২৪ রান করে তাকে সঙ্গ দেন আরেক জয়সওয়াল।

এদিন ব্যাট হাতে আলো ছড়াতে পারেননি রিয়ান পরাগও। ১১ বলে ১৪ রান করে আউট হন এই ব্যাটার। এরপর ধ্রুব জুরেলকে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকে সানজু স্যামসন।

দুজনের ব্যাটে ভর করে জয়ের পথে এগিয়ে যেতে থাকে রাজস্থান। শেষ পর্যন্ত জুরেলের ৩৪ বলে ৫২ রান এবং স্যামসনের ৩৩ বলের অপরাজিত ৭১ রানে ভর করে সাত উইকেট এবং ছয় বল হাতে থাকতেই জয় তুলে নিয়েছে রাজস্থান।

লখনৌয়ের হয়ে যস ঠাকুর, মার্কাস স্টোইনিস এবং অমিত মিশরা একটি করে উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের তৃতীয় বলে সাজঘরে ফেরেন লখনৌয়ের প্রোটিয়া ওপেনার কুইনটন ডি কক। ৩ বলে ৮ রান করেন এই প্রোটিয়া ব্যাটার। এদিন ব্যাট হাতে আলো ছড়াতে পারেননি আগের ম্যাচে জয়ের নায়ক মার্কাস স্টোইনিস। ৪ বলে শূন্য রান করে তিনি।

এরপর দীপক হুদাকে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকেন অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। দুজনেই তুলে নেন ফিফটি। ৩১ বলে রাহুল এবং ৩০ বলে অর্ধশতক পূরণ করেন দীপক। পরের বলেই সাজঘরে ফেরেন এই ডান হাতি ব্যাটার।

কিন্তু এক প্রান্ত আগলে রাখেন রাহুল। তাকে সঙ্গ দেন নিকোলাস পুরান। তবে ইনিংস বড় করতে পারেননি পুরান। ১১ বলে ১১ রান করে আউট হন তিনি। ৪৮ বলে ৭৬ রান করেন লখনৌ দলপতি।

শেষ পর্যন্ত কুর্নাল পান্ডিয়ার ১১ বলে ১৫ রান এবং আইয়ুস বাদোনির ১৩ বলে ১৮ রানের ইনিংসে ভর করে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৯৬ রানের লড়াকু পুঁজি পায় লখনৌ।সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news