ঢাকা, শনিবার, জুলাই ২০, ২০২৪ | ৪ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

আইসিসি’র গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আবেদনকে সমর্থন করতে ব্রিটিশ সরকারকে ১০৫ এমপির আহবান


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ২২ মে, ২০২৪, ০৯:০৫ পিএম

আইসিসি’র গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আবেদনকে সমর্থন করতে ব্রিটিশ সরকারকে ১০৫ এমপির আহবান

আইসিসি’র গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আবেদনকে সমর্থন করতে ব্রিটিশ সরকারকে ১০৫ এমপির আহবান

আল-মায়াদীনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১০৫ জন এমপি ও লর্ডস সভার সদস্য স্বাক্ষরিত আইসিসিকে সমর্থন করার জন্য যথাসাধ্য করতে আহবান জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এবং প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে। মঙ্গলবার সুনাক-ক্যামেরন আইসিসির গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আবেদন মধ্য এশিয়ায় শান্তি আনতে পারবে না বলে মন্তব্য করেন। তারপরেই এমপিদের এই উদ্যোগ। 

ইনডিপেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চিঠিটির উদ্যোক্তা লেবার এমপি রিচার্ড বার্গন ও ইমরান হোসেন বলেছেন, ‘গাজায় আন্তর্জাতিক আইন লংঘনের সুস্পষ্ট তথ্য প্রমাণাদি রয়েছে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে এই অপরাধ সংগঠনের জন্য দায়িদের বিচার হওয়া উচিত।’

চিঠিতে সরকারকে ‘স্বাধীন ও নিরপেক্ষ আন্তর্জাতিক আদালতকে ভয় দেখানোর যেকোনো প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে স্পষ্ট অবস্থান নেওয়ার’ আহ্বান জানানো হয়েছে। ‘আদালত, তার প্রসিকিউটর এবং এর সমস্ত কর্মীদের অবশ্যই মুক্ত হতে হবে। তাদেরকে ভয় বা অনুগ্রহ ছাড়াই ন্যায়বিচার অনুসরণ করার ক্ষেত্র দিতে হবে।’

এমবি বার্গন বলেন, যদিও সরকার ‘৭ অক্টোবর হামাসের দ্বারা সংঘটিত যুদ্ধাপরাধের যথাযথ নিন্দা করেছে, তবে এটি গাজায় ইসরায়েল কর্তৃক সংঘটিত যুদ্ধাপরাধের নিন্দা করতে বারবার অস্বীকার করেছে।’

আইসিসির কাছে দখলদার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়ভ গ্যালান্ট ও তিনজন প্রতিরোধ নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা চাওয়া হয়েছে। নেতানিয়াহু এবং গ্যালান্টের বিরুদ্ধে অভিযোগের মধ্যে রয়েছে ‘ধ্বংসযজ্ঞ চালানো, মানবিক ত্রাণ সরবরাহকে অস্বীকার করে যুদ্ধের হাতিয়ার হিসাবে অনাহারকে ব্যবহার করা এবং ইচ্ছাকৃতভাবে সংঘর্ষে বেসামরিক মানুষকে লক্ষ্যবস্তু করা। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি