ঢাকা, শনিবার, জুলাই ২০, ২০২৪ | ৪ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

ওয়ানডে বিশ্বকাপ হেরে আক্ষেপ নেই কোহলির, হৃদয়ভঙ্গ অন্য দুই হারে


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ১৯ মে, ২০২৪, ০৯:০৫ পিএম

ওয়ানডে বিশ্বকাপ হেরে আক্ষেপ নেই কোহলির, হৃদয়ভঙ্গ অন্য দুই হারে

ওয়ানডে বিশ্বকাপ হেরে আক্ষেপ নেই কোহলির, হৃদয়ভঙ্গ অন্য দুই হারে

গত বছর ভারতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল ওয়ানডে বিশ্বকাপ। অপরাজিত থেকে ফাইনাল খেলা ভারত হেরেছিল অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। সে পরাজয় এখনও তরতাজা ক্ষত হয়েই থাকবে ভারতীয়দের মনে। তবে আহমেদাবাদের সেই ফাইনাল নিয়ে বিরাট কোহলির কোনো আক্ষেপ নেই। বরং এই কিংবদন্তির জীবনে অন্য আরো দুটি ঘটনায় হৃদয়ভঙ্গ হয়েছিল।

জিও সিনেমাতে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কোহলি বলেছেন, একটি ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আমি এমন অবস্থায় ছিলাম, মনে হচ্ছিল যাই হোক না কেন, আমি এটা করতে পারব। কিন্তু ওই নো বলগুলো এবং এসব-ওসব, এটা পেছন ফেলে এগিয়ে যেতে আমার অনেক সময় লেগেছে। পরের দিন আমি আক্ষরিক অর্থেই বিধ্বস্ত ছিলাম। আমার ঘর থেকে বের হতে পারছিলাম না। আমার জন্য বেশ কঠিন হয়ে গিয়েছিল সময়টা। -জিও সিনেমা

২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ৭ উইকেটের হেরেছিল ভারত। মুম্বাইয়ে সেদিন ভারত ১৯২ রানের পুঁজি গড়তে পেরেছিল কোহলির ৪৭ বলে অপরাজিত ৮৯ রানের ইনিংসে ভর করে। ফর্মের তুঙ্গে ছিলেন বলেই টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের আক্ষেপ বেড়েছিল তার। একই বছর আইপিএলেও ৯৭৩ রান করে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছিলেন। কিন্তু সেবারও আইপিএলের শিরোপাটা তুলতে পারেননি হাতে।

ফাইনালে ভালো অবস্থানে থেকেও কীভাবে হারলেন, এখনও বিশ্বাস করতে কষ্ট হয় কোহলির। ডানহাতি এই ব্যাটার বলেন, তারপর আমরা যখন বেঙ্গালুরুতে আইপিএল ফাইনাল হারলাম। আমার মনে হচ্ছিল, এটা লেখাই ছিল (শিরোপা আমাদের)- যে অবস্থানে ছিলাম এবং তারপর ফাইনালে এলাম। আমরা ২০০ এর মতো তাড়া করছিলাম (২০৯), এবং নয় ওভারেই আমাদের রান ১০০ এর মতো হয়ে গিয়েছিল বিনা উইকেটে। যখন এবি (ডি ভিলিয়ার্স) আউট হলেন, আমাদের প্রয়োজন ছিল ৬৮ (আদতে ৭১) রান ৪২ বলে, সঙ্গে আট উইকেট বাকি ছিল হাতে। আপনি যদি ফিরে তাকান, মনে হয়, কীভাবে আপনি সেই খেলাটায় হেরে যেতে পারেন?

এবারও আইপিএলে প্রথম আট ম্যাচের সাতটা হেরে বসে কোহলির বেঙ্গালুরু। পরের ছয় ম্যাচ টানা জিতে রানরেটে চেন্নাই সুপার কিংসকে হারিয়ে নিশ্চিত করেছে প্লে অফ। বাকি চিত্রনাট্যে কোহলির জন্য কি অপেক্ষা করছে দেখার বিষয়।  সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি